আজ শুক্রবার| ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং| ১০ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ শুক্রবার | ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

গল্প-হঠাৎ কেউ/লেখক তৃষা ঘোষ মম

বুধবার, ১৩ মে ২০২০ | ৩:৫১ অপরাহ্ণ | 37 বার

গল্প-হঠাৎ কেউ/লেখক তৃষা ঘোষ মম

কোন রকম ভালোবাসার সম্পর্ক না থাকা সত্ত্বেও মানুষটার জেদের জন্য বিয়ে করতে বাধ্য হয়েছিলাম তাও পরিবারকে লুকিয়ে। আমার প্রাক্তন আমায় ছেড়ে যাওয়ার পর এই মানুষটা আমায় আগলায়।একাকিত্ব আর ডিপ্রেশন থেকে ধীরে ধীরে বের করে আনে। সেদিন খুব অবাক হয়েছিলাম লজ্জাও পেয়েছিলাম যেদিন প্রথম জেনেছিলাম, উনি আমার প্রাক্তনের বড় ভাই। আমাকে হাসাবার অদ্ভুত ক্ষমতা নিয়ে যেন এই লোক জন্মেছে।মাঝে মাঝে অবাক দৃষ্টিতে ভাবি একটা মানুষ আজব চরিত্র যাকে বুঝে ওঠা আমার কখনও সম্ভব হয় নি।কখনও মনে হয় উনি সেই মানুষ যখন পুরো পৃথিবী আমায় পর করে দেবে এই মানুষটা পাশে এসে আমার জন্য আলাদা নতুন পৃথিবী সৃষ্টি করবে।আবার কখনও ওনার জেদ দেখে মনে হত উনি আমার জীবনে না থাকলেই ভালো হত।বাবা মা কে ছেড়ে আসতে হত না। এজন্য ওনার উপর রাগ থাকলেও ধীরে ধীরে ওনার ভালোবাসায় বুঝে গেলাম,একদিন বাবা মা কে ছেড়ে আসতেই হত। না হয় অগোছালো আজব মানুষটাকে ভালোবেসেই ছেড়েছি বলেই, আজ আমার জীবনটা এত সুন্দর গোছালো।কিন্তু আশ্চার্যজনক ভাবে প্রতিবার ওনার জেদের পর আমি ভালো কিছুর সনধান পেতাম।কখনও ভালোবাসতে পারবো না কাউকে এই দৃঢ় পণ নিয়ে থাকা আমিটাও তাকে ভালোবেসে ফেললাম।বাসবোই বা না কেন,এই মানুষটা আমার অতীত জেনেও এমন ভাবে আমায় আগলে রেখেছে যেন অতীত বলে কিছু আমার জীবনে ছিলোই না।হঠাৎই আমার পৃথিবী পাল্টে যায় যেদিন আমার পুরো পরিবার জেনে যায়,আমাদের বিয়ের কথা। রাহাত মানে আমার স্বামীকে তারা মেনে নিতে পারে নি আভিজাত্যর অহংকারে।আমি তখন দেড়মাসের অন্তসত্ত্বা পরিবারের থেকে মানসিক চাপে আমি তখন বিধ্বস্ত প্রায়। বাবা মা কে আর না ওনাকে কাউকেই ছাড়তে পারবো না ভেবে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেই তখনই মানুষটা আমাকে প্রথমবারের মত থাপ্পর মারে। কিন্তু তারপর নিজেই আমাকে জড়িয়ে ধরে বাচ্চাদের মত হুহু করে কেঁদে ওঠে।তখন বুঝেছিলাম এই মানুষটা কতটা ভালোবাসে আমায়। একপ্রকার জোড় করে সেদিন তিনি আমায় নিয়ে আসে আলাদা বাসায়। হঠাৎই কাঁধে কারও স্পর্শ অনুভব করলাম।মিথিলা তুমি এখনও কষ্ট পাচ্ছো। না রাহাত। আমার কাছে লুকাবার ব্যর্থ চেষ্টা কেন করছো? বাসার জন্য মন খারাপ লাগছে। এই মানুষটাই আমি কিছু না বলতেই বুঝে যায়। কখনও কিছু ওর চোখে লুকাতে পারি নি।এরই মধ্যে কথাব্য এসে আমাদের দুজনকে জড়িয়ে ধরে বলে,মামমাম পাপা আমার বোন কবে আসবে ?হ্যা, আমার আর রাহাতের প্রথম সন্তান কথাব্য।নতুন এক ভালোবাসার সংসার।
গল্প-হঠাৎ কেউ
তৃষা ঘোষ মম

It's only fair to share...Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

সর্বশেষ সংবাদ
ফেইসবুক পাতা