আজ শুক্রবার| ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং| ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ শুক্রবার | ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং

শরীয়তপুর ডামুড্যা মাস্ক পড়াকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যানের ওপর হামলায় স্ত্রী ছেলে সহ আহত ৪

মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০ | ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ | 62 বার

শরীয়তপুর ডামুড্যা মাস্ক পড়াকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যানের ওপর হামলায় স্ত্রী ছেলে সহ আহত ৪

ডামুড্যা মাস্ক পড়াকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যানের ওপর হামলায় স্ত্রী ছেলে সহ আহত

শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যায় মাস্ক পড়াকে কেন্দ্র করে সিড্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন আমিন ও বাড়িতে হামলা এবং ভাংচুড়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৮ টায় এই ঘটনা ঘটে।

এতে আহত হন চেয়ারম্যান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন আমিন, স্ত্রী মমতাজ বেগম (৫০), ছেলে রাব্বি আমীন ও ভাতিজা চৈতন (১৮)।

স্থানীয় ও ভোক্তভোগীরা বলেন, সোমবার সকালে সিড্যা আমিন বাজারে কাইচকুড়ি গ্রামের গিয়াস উদ্দিন ঢালী (৫০) কলা বিক্রির জন্য আসে। তখন তার মুখে মাস্ক না থাকায় সিড্যা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ছেলে রাব্বি আমিন মাস্ক কোথায় এবং কেন পড়ে নাই জিগাসা করে। এতে গিয়াসউদ্দিন ঢালী বিভিন্ন ধরনের কথা বলেন। এবং তার সাথে তর্কে জড়িয়ে যান। স্থানীয়দের সাহায্যে মিমাংসা হয় ব্যপার টা। পরে রাতে সাড়ে ৮ টার সময় গিয়াসউদ্দিন ঢালীর নেতৃত্বে কাইচকুড়ির ২০ থেকে ২৫ জন দলবল নিয়ে প্রথমে রাব্বি আমিনের ওপর পরে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রীর ওপর হামলা করেন। এতে করে তারা সহ ৪ জন আহত হন।

সকালের প্রত্যক্ষদর্শী কোরবান আলী ঢালী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রাব্বি বাজার সহ ইউনিয়নের বিভিন্ন লোক বহুল জায়গা হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে সচেতনতার প্রচার করে আসছে। পাশাপাশি মাস্ক ও সাবান বিতরণ করেন। সোমবার সকালে আমিন বাজারে গিয়াস উদ্দিন ঢালী কলা বিক্রি করা জন্য আসছে মাস্ক ছাড়া। পথের মধ্যে রাব্বি ধরে জিগাসা করে আপনার মাস্ক কই। তখন সে বলে আছে পকেটে। পড়েন না কেন। এই কথা বললে তুই তামারি ভাষে ব্যবহার করে গিয়াস উদ্দিন। পরে থামতে বলে আরোও বেশি করে করে। আর বলে তোকে দেখে নিবো। পরে আমরা মানিয়ে দেই। এখন শুনি রাতে ই দল বল নিয়ে চেয়ারম্যান সহ ৪ জনের ওপর হামলা করে।

সিড্যা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন আমিন বলেন, রাত সারে ৮ টার দিকে আমাকে কাইচকুড়ি থেকে এক জনে ফোন করে বলে রাব্বি কে সরে যাইতে বলেন। ওকে মারার জন্য কারা যেন আসতাছে। তখন ই আমি রাব্বি কে ফোন দেই। ফোন দেওয়ার সাথে সাথে দেখি রাব্বি দৌড় দিয়ে এসে দরজায় পড়ে যায়। পড়ে যাওয়ার অবস্থায় কয়েকজন ওর পায়ের ওপর হকিস্টিক দিয়ে বাড়ি দিতে থাকে। আমি জোরে চিৎকার দিলে ওরা আমার ওপর আক্রমন করে। আমাকে বাচাতে আমার স্ত্রী আসলে তার মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ দেয়। কয়েকজন আমার ও আমার ভাইর ঘরের টিনে কোপ দিয়ে। কে বা কারা তাৎক্ষণিক তা বলা যাবে না। তবে আমি কয়েকজন কে চিনেছি।

এ ব্যপারে ডামুড্যা থানা অফিসার্স ইনচার্জ মেহেদী হাসা বলেন, সিড্যা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন আমিনের ওপর হামলা হয়েছে। আমরা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছি। তবে এখনও কেউ কোন মামলা করেন নি। মামলা হলে অবশ্যই আইনী ব্যবস্থা নেবো।

It's only fair to share...Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

সর্বশেষ সংবাদ
ফেইসবুক পাতা