আজ রবিবার| ১২ই জুলাই, ২০২০ ইং| ২৮শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ রবিবার | ১২ই জুলাই, ২০২০ ইং

করোনায় বৈশাখী মেলা না থাকায় আর্থিক সংকটে মাটির হাঁড়ি পাতিল তৈরি করা পাল গোষ্ঠী

শনিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২০ | ৫:০১ অপরাহ্ণ | 153 বার

করোনায় বৈশাখী মেলা না থাকায় আর্থিক সংকটে মাটির হাঁড়ি পাতিল তৈরি করা পাল গোষ্ঠী

করোনায় বৈশাখী মেলা না থাকায় আর্থিক সংকটে মাটির হাঁড়ি পাতিল তৈরি করা পাল জনগোষ্ঠ।

শরীয়তপুর নড়িয়া উপজেলা ঘড়িষার বাজারে প্রতিবছর পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে মাটির জিনিসপত্র হাড়িপাতিল নিয়ে মেলার আয়োজন করে পাল জনগোষ্ঠী ।এই মেলার আয়ের উপর টিকে আছে মধ্যবিত্ত পাল সম্প্রদায়।করোনা ভাইরাসের কারনে এ বছর মেলা বন্ধ হওয়ায় আর্থিক সংকটে পড়েছে হাড়ি-পাতিল বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করা পরিবারগুলো।শ্রী হরি পাল জানান,দশ সদস্য বিশিষ্ট পরিবার নিয়ে তিনি আর্থিক সংকটে ভুগছেন।৩০ হাজার টাকার মাটির হাঁড়ি পাতিল বৈশাখী মেলার উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে করোনার কারনে মেলা না হওয়ায় , বিক্রয় অভাবে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে মাটির তৈরি খেলনা আসবার পত্র গুলো। দরিদ্র পরিবার হওয়ায় তারা আছেন উভয় সংকটে।না পাচ্ছেন কোনরকম ত্রান সহযোগিতা।না আছে আয়ের কোন উৎস এভাবে চলতে থাকলে অচিরেই বন্ধ হয়ে যাবে শত শত বছরের ঐতিহ্যবাহী ঘড়িসার পালপাড়ার মৃৎশিল্প।সাতকড়ি পাল বলেন,তার৫০ হাজার টাকার মাটির জিনিসপত্র তৈরি করেছি বৈশাখী মেলা না হওয়ায় আটকা পড়েছে ধার-কর্জ করা পুঁজি।যার ফলে,আর্থিক সংকটে আছি পরিবার নিয়ে।তার স্ত্রী বলেন,কষ্ট করে চলছি আয়ের উৎস বন্ধ এসময় সরকার আমাদের পাশে না দাঁড়ালে আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে না খেয়ে মরতে হবে। আমরা আমাদের স্বামী সন্তান নিয়ে মাসের পর মাস কষ্ট করে দিনরাত পরিশ্রম করে বৈশাখী মেলায় খেলনা আসবারপত্র বিক্রির আশায় ধার-কর্জ করে মাটির জিনিসপত্র বানিয়েছি। করোনার কারণে মেলা না বসায় আমরা ক্ষতির মধ্যে পড়েছি জানি না ভগবান কবে আমাদের এই বিপদ থেকে উদ্ধার করবে।

It's only fair to share...Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn

সর্বশেষ সংবাদ
ফেইসবুক পাতা